রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

আমি স্বেচ্ছায় মুশতাককে বিয়ে করেছি : আইডিয়াল ছাত্রী

রাজধানীর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য খন্দকার মুশতাক আহমেদকে স্বেচ্ছায় বিয়ে করেছেন বলে জবানবন্দি দিয়েছেন একাদশ শ্রেণির সেই ছাত্রী।

ঠাকুরগাঁও চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গত রোববার (১৬ জুলাই) ২২ ধারায় জবানবন্দি দেন সিনথিয়া ইসলাম তিশা।

আদালতকে ওই ছাত্রী বলেন, আমি একজন প্রাপ্তবয়স্ক। নিজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার আমার আছে। আমি মুশতাককে স্বেচ্ছায় বিয়ে করেছি। তিনি কোনো জোর-জবরদস্তি করেননি। আমার বাবা যে মামলা করেছেন, আমার স্বামীকে হয়রানি করার জন্যই করেছেন।

এ সময় সিনথিয়া অপহরণ ও ধর্ষণের শিকার হননি বলেও আদালতকে জানান। এরপর আদালতের মাধ্যমে নিজ জিম্মায় স্বামী মুশতাক আহমেদকে নিয়ে ঢাকায় ফেরেন।

এর আগে, গত ২২ জুন ঠাকুরগাঁও আদালতে আইডিয়াল স্কুলের গভর্নিং বডির সদস্য খন্দকার মুশতাক আহমেদের বিরুদ্ধে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন ওই ছাত্রীর বাবা সাইফুল ইসলাম।

মুশতাকের আইনজীবী মো. সাহাবুদ্দিন খান বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল মামলাটি তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে সদর থানাকে নির্দেশ দেন। এ অবস্থায় ভিকটিম নিজে আদালতে এসে ২২ ধারায় জবানবন্দি দেন। এ ছাড়া মামলায় ছাত্রীর বয়স ১৬ উল্লেখ করে হয়েছিল। কিন্তু আদালত তার জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই করে বয়স ১৮ বছর চার মাস পেয়েছে। অর্থাৎ তিনি একজন প্রাপ্তবয়স্ক। তার সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার রয়েছে।

আরও পড়ুন