শুক্রবার, ১২ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

জাবি ভিসির বাসভবনের সামনে ছাত্রীদের বিক্ষোভ

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) নতুন হল খুলে দেয়ার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের (ভিসি) বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীরা।

রোববার রাত ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চৌরঙ্গী মোড় থেকে শতাধিক শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন।

শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচির কর্মসূচির খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. নূরুল আলম, প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আবু হাসানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে আসেন। পরে রাত ১২টার দিকে উপাচার্যের আশ্বাসে তারা সেখান থেকে সরে যান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ হাসিনা ও বেগম খালেদা জিয়া আবাসিক হলের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি, অবিলম্বে নতুন আবাসিক হলে তাদের জন্য আসন বরাদ্দ করতে হবে।

ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষার্থী মোহসিনা আক্তার মিম গণমাধ্যমকে বলেন, গণরুমে প্রায় দেড় বছরের বেশি সময় ধরে আছি। দ্বিতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষাও চলে আসছে। গণরুমে পড়াশোনার কোনো পরিবেশ নেই। এক রুমে আমরা প্রায় ৯৫ জনের মতো থাকি। এই গরমে এক রুমে এতজন থাকতে হচ্ছে।

৫১ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সোহাগী সামিয়া বলেন, তীব্র গরমের মধ্যে এক রুমে থাকি প্রায় ৯৫ জন। ফ্যানের বাতাস গায়ে লাগে না। তাছাড়া ডেঙ্গু মৌসুম চলছে এখন। রাতে মশারী টানানো সম্ভব হয় না। গাদাগাদি করে থাকি। অমানবিক জীবনযাপন করছি। অথচ প্রশাসনের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তাই আমরা এখানে এসেছি এক দফা দাবিতে, নতুন হল দ্রুত খুলে দেয়া হোক। আমাদের আসন দেওয়া হোক।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নূরুল আলম বলেন, নতুন আরও দুটি হলের চাবি আমাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। কিন্তু লোকবলের অভাবে হল চালু করতে পারছি না। আগামী ২৭ জুলাই ইউজিসির সাথে মিটিং রয়েছে। তারপর আমরা সিদ্ধান্ত নিব।

পরে উপাচার্য শিক্ষার্থীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে নতুন হলগুলো চালু করে আসন বরাদ্দের আশ্বাস দেন। উপাচার্যের আশ্বাসে রাত ১১টার দিকে কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন