রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪

সর্বশেষ

চাঁদকে হিন্দু রাষ্ট্র ঘোষণার দাবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মহাকাশে দীর্ঘ প্রায় ৪০ দিনের যাত্রা শেষে গত ২৩ আগস্ট ভারতের মহাকাশযান চন্দ্রযান-৩ চাঁদের বুকে অবতরণ করে। এর মাধ্যমে দেশটি বিশ্বের এলিট ‘স্পেস ক্লাবে’ জায়গা করে নেয়। ঐতিহাসিক এ সাফল্যের মধ্যে দিয়ে বিশ্বের চতুর্থ দেশ হিসেবে ভারত এ গৌরব অর্জন করে। সেইসঙ্গে চাঁদের দক্ষিণ মেরু অঞ্চলে অবতরণের দিক থেকে ভারতই প্রথম দেশ। পরবর্তী সময় দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সেই ল্যান্ডিং স্পটের নাম ‘শিবশক্তি’ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।

এবার চাঁদকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দেওয়ার দাবি করেছেন অল ইন্ডিয়া হিন্দু মহাসভা’র (এআইএইচএম) জাতীয় প্রেসিডেন্ট স্বামী চক্রপানি মহারাজ। সেইসঙ্গে তিনি ভারত সরকারের কাছে আহ্বান জানিয়েছেন, চন্দ্রযান-৩ চাঁদের যেখানে অবতরণ করেছে, তাকে যেন এর রাজধানী ঘোষণা করা হয়।
স্বামী চক্রপানি মহারাজ

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চক্রপানি ভারত সরকারকে এ বিষয়ে একটি প্রস্তাব পার্লামেন্টে পাস করানোর দাবি করেছেন। অন্য ধর্মের কেউ এ কাজ করার আগেই ভারত সরকার যেন এটি পার্লামেন্টে পাস করে তার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও শেয়ার করে চক্রপানি মহারাজ বলেছেন, ভারতীয় সরকারের উচিৎ দ্রুত এ কাজ সম্পন্ন করা যেন কোনো সন্ত্রাসী সেখানে পৌঁছাতে না পারে।

ভিডিওতে তিনি আরও বলেছেন, পার্লামেন্টে চাঁদকে হিন্দু সনাতন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করা উচিৎ। আর চন্দ্রযান-৩ অবতরণের স্থান ‘শিব শক্তি পয়েন্ট’কে রাজধানী হিসেবে গড়ে তোলা উচিত।

গত বুধবার ভারতের এ সফল চন্দ্রাভিযান বিশ্বব্যাপী প্রশংসা কুড়াচ্ছে। ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর তথ্য অনুসারে, চন্দ্রযান-৩ অভিযানে ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ভারতীয় মুদ্রায় মোট ৬১৫ কোটি রুপির মতো খরচ হয়েছে।

আরও পড়ুন