রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪

সর্বশেষ

দন্ডিত পলাতকদের যারা আশ্রয় দেয় তাদের সভ্য দেশ বলা যায় না-আ.জ.ম. নাছির

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী বলেছেন, ৭৫ পরবর্তী সময়ে স্বৈরশাসক জিয়াউর রহমান কৌশলে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে কয়েকটি প্রজন্মকে ইতিহাস বিকৃতির মাধ্যমে আফিমের নেশায় বুদ করে রেখেছিল। তাদের মন থেকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস মুছে ফেলতে চেয়েছিল। এমনকি দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে স্বাধীনতা বিরোধী ও যুদ্ধাপরাধীদের হাতে সমর্পিত করা হয়েছিল। এমন একটি দলের স্বাধীন দেশে রাজনীতি করার অধিকার থাকার কথা নয়। তাই আমাদের প্রত্যেককে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় শানিত হয়ে এই অপশক্তিকে রাজপথে রুঁখতে হবে। তিনি আজ রোববার বিকেলে বঙ্গবন্ধুর ৪৮ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনোপলক্ষে আকবরশাহ থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্ণেলহাট হাসপাতাল চত্বরে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি নির্বাচন করতে চায় না। তারা চায় নির্বাচন বানচাল করে অবৈধ পন্থায় ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে এজন্যই তারা আন্দোলনের নামে রাজপথ গরম করে দেশকে একটি অস্থিতিশীল রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। তাদের এই কুমতলব কখনো হাসিল হবে না। কারণ এদেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী শক্তি। তারা শত্রু কে, মিত্র কে তা ভালোভাবে চিনতে পারে। প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন বলেছেন, বিএনপির একজন শীর্ষ নেতা যার পিতা ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর সহায়ক প্লাটফর্ম শান্তি বাহিনীর চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি গতকাল বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের করের টাকায় বিদেশে গিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। উজান ভাটির টানে খড় কুটোর মতো ভেসে আসার এই কথিত নেতা কি জানেন না তারা জনগণকে শোষণ করে মানুষের অধিকার লুন্ঠন করে এবং লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে তদবীরকারী লবিস্ট নিয়োগ করে জোর করে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য ধরর্ণা দিচ্ছে।

গ্রেনেড হামলা ও অস্ত্র চোরাচালান মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী যুক্তরাজ্যে বিলাসী মেজাজে বসবাস করে রাষ্ট্র বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এমন একটি লোককে যেই রাষ্ট্রটি আশ্রয় দিয়েছে তাদের সভ্য দেশ বলতে ঘৃণা হয়। তিনি তারেক রহমান সহ সকল দ-িত পলাতক আসামীদের দেশে ফিরিয়ে বিচারের রায় কার্যকর করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ এমপি বলেছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল সহ তিনজন নেতা চিকিৎসার নামে সিঙ্গাপুর সফর করছেন।

এই সিঙ্গাপুর মিশনের অর্থ আদৌ চিকিৎসা নয় ষড়যন্ত্রের দাবার ছক তৈরি করা। আকবরশাহ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে লোকমান আলী ও ফয়েজ আহমেদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আলহাজ্ব সফর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, নির্বাহী সদস্য নেছার উদ্দীন আহমেদ মঞ্জু, আকবরশাহ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আলতাফ হোসেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সরওয়ার মোর্শেদ কচি, ইকবাল চৌধুরী, গিয়াস উদ্দীন জুয়েল, হাবিবুর রহমান চৌধুরী, আবু সুফিয়ান, হারুনুর রশিদ, মোঃ আলী বাবলু, আবদুল ওয়াজেদ খান রাজিব, এমজি রহমান দিপু, জমির উদ্দীন মাসুদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন