রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪

সর্বশেষ

একুশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়ার শোক সভা ও শিক্ষাবৃত্তি প্রদান

একুশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ, বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের মহাসচিব, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালরের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বৌদ্ধ নেতা, উপমহাদেশের খ্যাতিমান পদার্থ বিজ্ঞানী, দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক, বুদ্ধিজীবী চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের প্রধান উপদেষ্ঠা, আমৃত্যু বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ফেরিওয়ালা অধ্যাপক ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়ার শোকসভা ও শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান গতকাল ২৮ শে আগষ্ট সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি বাবুল কান্তি দাশের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সেন্টার ফর এক্সেলেন্স বুডিস্ট স্ট্যাডিজের সভাপতি প্রফেসর ড. দীপংকর শ্রীজ্ঞান বড়ুয়া। প্রধান আলোচক ছিলেন ইউএসটিসির সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ডাঃ প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া স্মারক বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সুকান্ত ভট্টাচার্য।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আসিফ ইকবালের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রাশেদ মনোয়ার, শিক্ষাবিদ, অধ্যক্ষ ছন্দা চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি অশোক সাহা, সাতকানিয়া পৌর মেয়র মোঃ জোবায়ের, উত্তর জেলা জাসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ভানুরঞ্জণ চক্রবর্তী, উত্তর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড.বাসন্তী প্রভা পালিত, নাট্যজন সজল কান্তি চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জসিম উদ্দীন চৌধুরী, উত্তর জেলা যুবলীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক আবুল বাশার, কবি আশীষ সেন, ন্যাপ কেন্দ্রীয় নেতা মিঠুল দাশগুপ্ত, ব্যাংকার চন্দন কুমার চৌধুরী, ছড়াকার উৎফল কান্তি বড়ুয়া, লেখক অধ্যাপক সুপ্রতীম বড়ুয়া, প্রদীপ কুমার বড়ুয়া আনন্দ, শিক্ষক অজিত কুমার শীল, বিজয় শংকর চৌধুরী, মোঃ শাহজাহান, কবি সজল দাশ, সঙ্গীত শিল্পী অচিন্ত্য কুমার দাশ, সুমন বড়ুয়া, প্রণব রাজ বড়ুয়া, কবি মনজুর আলম, কানু রাম দে, চৌধুরী জসিমুল হক, রোজী চৌধুরী, সাবিহা সুলতানা রক্সি, মোঃ মহিউদ্দীন, রাজনীতিক স্বপন সেন, নাফিক আবদুল্লাহ, বাবুল বড়ুয়া, মনসুর আলম, নাসির হোসেন জীবন, রতন ঘোষ, শিহাব রহমান, মোঃ তিতাস, শাহিনুর আক্তার, সাফাত সানাউল্লাহ, ফয়সাল পারভেজ, পারভিন বেগম আইভি প্রমুখ। সভায় ৮ জন শিক্ষার্থী অধ্যাপক ড.বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া স্মৃতি শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

সভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন সাধারণে অসাধারণ, বিভাসিত বিকিরণ। রাষ্ট্রীয় পুরস্কার একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া। যাঁর জীবনটা ছিল ত্যাগ ও সেবার মহিমায় ভাস্বর। অধ্যাপনা জীবনে যেমন ছড়িয়েছেন আলোর দ্যুতি তেমনিভাবে সামাজিক কাজে জ্বালিয়েছেন আলোর মশাল। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়নে কর্মকুশল সক্রিয় প্রচেষ্টা সমাজ নেতাদের অভিনন্দনে সিক্ত। দেশপ্রেম ছিল অগাধ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক পথের অন্যতম সারথী বরেণ্য এই শিক্ষাবিদ সাংগঠনিকভাবে বিশ্বদরবারে নিজেকে উপস্থাপন করেছেন যোগ্যতা ও দক্ষতার অনন্য মাপকাঠিতে। প্রধান আলোচক বলেন ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া আমার সরাসরি শিক্ষক ছিলেন তার মৃত্যুতে জাতির তার এক শ্রেষ্ঠ সন্তানকে হারাল। যিনি দেশের একজন প্রতিথযশা শিক্ষাবিদ ছিলেন।

জীবন তিনি শিক্ষার জন্য কাজ করে গেছেন৷শিক্ষকতার মহান পেশার মাধ্যমে আমৃত্যু তিনি শিক্ষার জন্য অবদান রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে দেশের মানুষের অপুরণীয় ক্ষতি হয়েছে। যা সহজে পুরণ হওয়ার নয়। তিনি আমাদেরকে মহৎ জীবন ও দেশপ্রেমের আদর্শের শিক্ষা দিয়ে গেছেন। যিনি ছিলেন সদা বিনয়ী ও মহৎ হৃদয়ের অধিকারী। সমাজের সকল মানুষকে অতিসহজে আপন করে নিতে পারতেন। সর্বোপরি তিনি ছিলেন আপাদমস্তক বঙ্গবন্ধুপ্রেমী। এই মহান শিক্ষাবিদকে জাতি যুগ যুগ স্মরণ করবে। স্মারক বক্তা বলেন ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া ছিলেন আমার পিতার সমতুল্য শিক্ষক। যাকে আমি পিতার পরে স্থান দিয়েছি। একজন আদর্শিক, নির্লোভ ও দেশপ্রেমিক মানুষ ছিলেন ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া। অত্যন্ত সাদামাটা জীবনের অধিকারী অসাধারণ পন্ডিততুল্য ব্যক্তি ছিলেন ড. বিকিরণ প্রসাদ। তার সৃষ্টিশীল কর্ম যুগ পরস্পনায় আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবে।

আরও পড়ুন