রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

এইসএসসির রেজাল্ট ২৬-২৮ নভেম্বরের মধ্যে

চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে প্রকাশের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রস্তাব পাঠিয়েছে শিক্ষা বোর্ডগুলো।

শিক্ষা বোর্ডগুলো তথ্যানুসারে ২৬ থেকে ২৮ নভেম্বরের মধ্যে প্রকাশের জন্য প্রস্তাব দিয়েছে তারা। সোমবার (৩০ অক্টোবর) আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

অধ্যাপক তপন কুমার বলেন, এইচএসসির ফল ২৬ থেকে ২৮ নভেম্বরের মধ্যে প্রকাশের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এখন প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি সাপেক্ষে ফল প্রকাশের দিন নির্ধারণ করা হবে।

তিন শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা দেরিতে শুরু হলেও একই দিনে ফল প্রকাশিত হবে জানিয়ে সভাপতি বলেন, নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ফল একই দিন প্রকাশ করা হবে।

গত ১৭ আগস্ট থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হয়ে ২৫ সেপ্টেম্বর শেষ হয়। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৬ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে ৪ অক্টোবর শেষ হয়। তবে এবার বন্যার কারণে চট্টগ্রাম, কারিগরি ও মাদ্রাসা বোর্ডের পরীক্ষা দেরিতে শুরু হয়েছিল। ওই তিন শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা ২৭ আগস্ট থেকে শুরু হয়ে শেষ হয় অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে। এবার পূর্ণ নম্বর ও পূর্ণ সময়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। তবে আইসিটিতে ১০০ নম্বরের পরিবর্তে ৭৫ নম্বরের পরীক্ষা নেয়া হয়েছে।

এবার ১৩ লাখ ৫৯ হাজার ৩৪২ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশ নেন। এর মধ্যে ছাত্র ৬ লাখ ৮৮ হাজার ৮৮৭ জন এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৭০ হাজার ৪৫৫ জন। চলতি বছর সব বিষয়ে পূর্ণ নম্বর ও পূর্ণ সময়ে পরীক্ষার্থীরা অংশ নেন। তবে আইসিটিতে ১০০ নম্বরের পরিবর্তে ৭৫ নম্বরের পরীক্ষা হয়।

দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় অংশ নেন ১১ লাখ ৮ হাজার ৫৯৪ জন পরীক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছাত্র ৫ লাখ ২৬ হাজার ২৫১ জন এবং ছাত্রী ৫ লাখ ৮২ হাজার ৩৪৩ জন।

আর মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আলিম পরীক্ষায় অংশ নেন ৯৮ হাজার ৩১ শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছাত্র ৫৩ হাজার ৬৩ জন এবং ছাত্রী ৪৪ হাজার ৯৬৮ জন। এছাড়া, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন এইচএসসি (বিএম/বিএমটি), এইচএসসি (ভোকেশনাল) ও ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স পরীক্ষায় অংশ নেন এক লাখ ৫২ হাজার ৭১৭ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ছাত্র এক লাখ ৯ হাজার ৫৭৩ জন এবং ছাত্রী ৪৩ হাজার ১৪৪ জন।

আরও পড়ুন