বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪

সর্বশেষ

অবরোধের নামে বিএনপি-জামাত মানুষ হত্যা ও জ্বালাও পোড়াও করছে-নঈম উদ্দিন

 

বিএনপি জামাত এর অবরোধ বিরোধী শান্তি সমাবেশ বন্দর, ইপিজেড পতেঙ্গা থানা আওতাধীন ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নিমতলা চত্বরে শান্তি সমাবেশ ৩৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান মুরাদের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক হাজী হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী সংগঠন; দুর্বৃত্তদের সংগঠন। তথাকথিত অবরোধের নামে বিএনপি-জামাত অপশক্তি নৃশংস সন্ত্রাস চালিয়ে গণতান্ত্রিক পরিবেশ বিনষ্টের অপতৎপরতায় লিপ্ত হয়েছে। তারা হরতাল ও অবরোধের নামে বর্বরোচিতভাবে একজন পুলিশ সদস্যকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে এবং তাদের হামলায় ৪১ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। হাসপাতালে হামলা ও অগ্নিসংযোগ করেছে, প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলা চালিয়েছে, এ্যাম্বুলেন্স পুড়িয়ে দিয়েছে, অর্ধশতাধিক যানবাহনে অগ্নিসংযোগ করেছে। রাজধানীর ডেমরায় বিএনপির সন্ত্রাসীরা একটি বাসে আগুন দিয়ে ওই বাসের ভেতরে ঘুমন্ত অবস্থায় থাকা হেলপার নাঈম (২২)-কে হত্যা করেছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় ধর্ম উপকমিটির সদস্য শেখ নওশেদ সারোয়ার পিল্টু বলেন, বিএনপি-জামাতের সশস্ত্র ক্যাডাররা লালমনিরহাটে অতর্কিতভাবে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে। বিএনপি সন্ত্রাসীদের হামলায় সারাদেশে শতাধিক আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

এই অপশক্তি তথাকথিত আন্দোলনের নামে আর যেনো সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। বিএনপির ইতিহাস হলো বন্দুকের নলের মুখে জোরপূর্বক ক্ষমতা দখলের ইতিহাস; স্বৈরাচারের ইতিহাস। সন্ত্রাস, নাশকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির ধারাবাহিক অপরাজনীতির মধ্য দিয়ে বিএনপি একটি সন্ত্রাসী সংগঠনে পরিণত হয়েছে। বিএনপির ইতিহাস হলো হত্যা-খুন ষড়যন্ত্রের ইতিহাস; সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের ইতিহাস। তাদের হাত জনগণের রক্তে রঞ্জিত। কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রের আদালত বিএনপিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করেছে। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ৩৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মো. চৌধুরী, ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউল হক সুমন, ৩৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল মান্নান, ৪১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালেহ আহমদ চৌধুরী, ৩৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এসকান্দর মিয়া, ৩৮নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. আজম, সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন, ৪০নং ওয়ার্ড সভাপতি মো. নজরুল, সাধারণ সম্পাদক মো. সালাহউদ্দিন, ৪১নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মাইনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. জালাল উদ্দিন রাজু, ৩৬নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি জাকির মিয়া, মো. সালাহউদ্দিন, সুমন দাশগুপ্ত, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রানা চৌধুরী মাইকেল, রুবেল দে প্রমুখ।

আরও পড়ুন