শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

রৌফাবাদে হেলে পড়া ভবনে তদন্ত কমিটি

চট্টগ্রাম নগরের রৌফাবাদে নালা খনন কাজের সময় হেলে পড়া ভবন পরিদর্শন করেছে জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটি। সোমবার (২৭ নভেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রহমানের নেতৃত্বে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান তারা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কাট্টলী সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) উমর ফারুক, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, গণপূর্ত ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিনিধিরা।

এসময় তারা হেলে পড়া ভবনটির সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেন। ভবনের বাসিন্দারা দাবি করেছেন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ভবনের পেছনে থাকা খাল খনন করায় পিলার দুর্বল হয়ে হেলে পড়েছে।

অন্যদিকে সিডিএ’র প্রধান প্রকৌশলীর দাবি, বর্ণিত ভবনটি অপসারণ করার কথা ছিলো এবং ভবনের মালিক অপসারণের জন্য সময় নিয়েছিল।

জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে সিএমপি’র প্রতিনিধি, সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধি, সিডিএ’র প্রতিনিধি, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, ফায়ার সার্ভিসের প্রতিনিধি, পিডব্লিউডি’র প্রতিনিধিকে রাখা হয়েছে। কমিটি প্রয়োজনে চট্টগ্রাম প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের মতামত গ্রহণ করবে। সাতদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। আজকে সদস্য কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ভবন সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলেছেন।

তিনি আরও বলেন, আগামীকালের (মঙ্গলবার) মধ্যে ভবন সংশ্লিষ্ট সকল কাগজপত্র নিয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে দেখা করবেন। সব তথ্য-উপাত্ত যাচাই করে নির্দিষ্ট দিনের মধ্যেই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিবেন।

উল্লেখ্য, শনিবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে নগরের বায়েজিদ রৌফাবাদ এলাকার খোরশেদ ম্যানশন নামের একটি চারতলা ভবন হেলে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা জানায়, জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের আওতায় চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ) খালটি খনন করছে। ভবনের লাগোয়া অংশ থেকে মাটি সরিয়ে যাওয়ায় ভবনটি হেলে পড়েছে। এসময় পাশের আরেকটি পাঁচতলা ভবনসহ হেলে পড়া ভবনের ২৫ থেকে ৩০টি পরিবারকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

ওইদিন রাতেই হেলে পড়া চারতলা ভবন নিয়ে জেলা প্রশাসনের ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এতে জেলা প্রশাসনের ডিডিএলজিকে আহ্বায়ক রেখে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন— সিএমপি প্রতিনিধি, সিডিএ প্রতিনিধি, সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধি, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, ফায়ার সার্ভিসের প্রতিনিধি এবং গণপূর্ত বিভাগের প্রতিনিধিসহ সাত সদস্যের এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তদন্ত কমিটির সদস্যদের নাম জানাতে পারেনি জেলা প্রশাসন।

আরও পড়ুন