শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

সর্বশেষ

২০০ আসনে  নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার দুই দিনের মাথায় নির্বাচন বর্জন করেছে সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোট

২০০ আসনে প্রার্থী দিয়ে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার দুই দিনের মাথায় নির্বাচন বর্জন করেছে সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোট।

বুধবার গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে আটটি রাজনৈতিক দলের সমন্বয়ে গঠিত জোটটি নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্তের কথা জানায়।

এতে বলা হয়, বুধবার দুপুরে সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোটের নির্বাচন বিষয়ে জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবু জাফর কাসেমি সভাপতিত্ব করেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে জোটের পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনের কাছে তফসিল ১০ দিন পেছানোর দাবি জানানো হয়েছিল। কিন্তু নির্বাচন কমিশন অথর্বের মত কারো কোনো দাবি পর্যালোচনা করেনি। এর প্রতিবাদে সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোটভূক্ত সব দল ঐকমত্যের ভিত্তিতে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এর আগে গত সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে জোটটির নেতারা তফসিলের সময় ১০দিন বাড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ২০০ আসনে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নেতৃত্বে জোটের মধ্যে থাকা অন্য দলগুলো হলো- ইসলামিক মুভমেন্ট বাংলাদেশ, নেজামে ইসলাম বাংলাদেশ, বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলন, বাংলাদেশ ইসলামিক লিবারেল পার্টি, বাংলাদেশ মুসলিম জনতা পার্টি, বাংলাদেশ ইসলামিক ডেমোক্রেটিক ফোরাম, বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামিক পার্টি।

বাংলাদেশ ইসলামিক লিবারেল পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা আতাউর রহমান আতিকীর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন নেজামে ইসলাম বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাওলানা হারিছুল হক, বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলনের চেয়ারম্যান মাওলানা ইয়ামিন হোসাইন আজমী, বাংলাদেশ মুসলিম জনতা পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা আজিজুর রহমান, বাংলাদেশ ইসলামিক ডেমোক্রেটিক ফোরামের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন