মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪

সর্বশেষ

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষক, কবি ও কলাম লেখক জামশেদ উদ্দীনের জামিন লাভ

সীতাকুণ্ড  ও উত্তর চট্টগ্রামে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নিয়ে লেখা গবেষণা গ্রন্থ ‘৭১’ এর লেখক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষক, কবি ও কলাম লেখক জামশেদ উদ্দীন জামিন লাভ করেছেন।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) চট্টগ্রাম চিফ জুডিশিয়াল (তৃতীয় আদালত) ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়র ইকবাল এ জামিন মঞ্জুর করে পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

জানা গেছে, গবেষক জামশেদ উদ্দীনের বিরুদ্ধে বাদি হয়ে জৈনক আকবর হোসেন গত ১৮ মে চট্টগ্রাম চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে একটি মানহানির হামলা দায়ের করেন। মামলা নং সি আর ৪২০/২০২৩।

মামলার বাদি অভিযোগে উল্লেখ করেন, গবেষক জামশেদ উদ্দীন তার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা না দেয়ায় বাদির পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজাফ্ফর হোসেনকে নিয়ে মনগড়া ও মানহানিকর কথা লেখেন গ্রন্থে। এ ঘটনায় বাদির এক কোটি টাকা মানহানি হয়।

মামলাটির বিবাদী ও জেলা লিগ্যাল এইড-এর বিজ্ঞ আইনজীবী রানা ধর বলেন, মামলাটি মিথ্যা, বানোয়াট ও হয়রানিমূলক। মহামান্য আদালত জামিন মঞ্জুর করেন পরবর্তী তারিখ ধার্য্য করেন। ২০২২ সালে চট্টগ্রামের অবনী প্রকাশনা থেকে গ্রন্থটি প্রকাশিত হয়।

জানা গেছে, ৬৫৬ পৃ. মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক এ গ্রন্থে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড তথা উত্তর চট্টগ্রামসহ উপমহাদেশের মুক্তি-সংগ্রামের ইতিহাস অন্তর্ভুক্ত হয়। গ্রন্থে দ্বিতীয় পর্বে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের কিংবদন্তী ইতিহাসসহ ৭১ জন বীর গেরিলা ও সম্মুখযোদ্ধার জবানি স্থান পায়। এটি আকর গ্রন্থ হিসেবে সুধী মহলের কাছে ব্যাপক সমাদৃত হয়। গ্রন্থে প্রচ্ছদ শিল্পী ছিলেন উত্তম সেন। লেখক জামশেদ উদ্দিন-এর এ পর্যন্ত ১৮টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়। তার মধ্যে কবিতা, গল্প, উপন্যাসসহ মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক ৩টি গবেষণা গ্রন্থ রয়েছে। রাষ্ট্রীয় অনুদানে ২০২০-২০২১ সালে এশিয়াটিক সোসাইটি থেকে ‘মুক্তিযুদ্ধ জ্ঞানকোষ’-১০খন্ড প্রকাশিত হয়। লেখক এ গ্রন্থের ফেলো ও গবেষক হিসেবে নিয়োজিত হন এবং গবেষণা কার্য সম্পন্ন করেন। এছাড়া লেখক নিয়মিতভাবে দৈনিক পত্রিকায় কলাম লিখে আসছেন।

আরও পড়ুন