মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪

সর্বশেষ

মুন্নী ভাবির মতো অনেকের সংসার টার্গেট করেছে বুবলী: অপু বিশ্বাস

সংগীতশিল্পী কৌশিক হোসেন তাপসের সঙ্গে চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর প্রেমের গুঞ্জন নিয়ে গত কিছু দিন ধরেই নানা আলোচনা হয়েছে। দুদিন আগেই তাপসের স্ত্রী ফারজানা মুন্নীও বিষয়টি পরিষ্কার করেন।

মুন্নী জানিয়েছেন, বিভিন্ন পারিপার্শ্বিক অবস্থার কারণে প্রথম দিকে তিনি বুবলীকে সন্দেহ করেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন।

যদিও পরবর্তীতে ভুল বুঝে সেই পোস্ট মুছে দেন। তবে অপু বিশ্বাসের সঙ্গে নিজের কল রেকর্ড এডিট করে প্রকাশ করা হয় বলেও জানান মুন্নী। আর কাজটি করেছেন খোদ অপু বিশ্বাস। অডিও ফাঁসের ঘটনায় কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে অপু বিশ্বাসকে।

এবার এ বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন অপু বিশ্বাস। তিনি রোববার ভোরে একটি ভিডিওবার্তায় বিষয়টির বিস্তারিত তুলে ধরেন। অপু বিশ্বাস বলেন, বুবলীর একটি কথা নিয়ে মুন্নী ভাবি স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন।

তিনি লিখেছেন, তাপস-বুবলী সম্পর্কে রয়েছে। অপু বিশ্বাসের লাইফে বুবলী যে ঝামেলাটা করেছেন এবার আমাদের মাঝেই এমন একটা বিষয় তৈরি করতে চাইছেন। এর ১০-১৫ মিনিটে স্ট্যাটাসটি উধাও হয়ে যায়। এর পর একটি গ্রুপ বলে আমি নাকি হ্যাক করে এমন স্ট্যাটাস দিয়েছি। আমি কিন্তু ভাবির সঙ্গে কথাই বলিনি কখনো। তার নম্বরও জানি না। যখন তিনি স্ট্যাটাস দিলেন, তখন তো আমি ভাবিকে বলিনি আমার নাম ধরে পোস্ট দিতে। উনি কেন আমার নাম ধরে পোস্ট করলেন? আমি তো তাকে এ ধরনের কথা কখনো শেয়ার করিনি। কোনো কথা নেই, আমাকে হঠাৎ করে হ্যাকার বানিয়ে দেওয়া হলো!

অপু বলেন, মুন্নী ভাবি একজন পাওয়ার পারসোনালিটি ওমেন। তাকে শ্রদ্ধা করি। আমার তার প্রতি কোনো মন খারাপ নেই। কারণ সবাই তার সংসার বাঁচাতে চায়। এই যে তার সংসারের টানাপোড়েন, সেটা তৃতীয় পক্ষের জন্য। এ রকম তৃতীয় পক্ষ আমার সংসার ধ্বংস করে দিয়েছে। আমার সংসার নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হয়েছে। একটি পরিবারকে হাস্যকর বিষয় বানিয়ে ফেলেছে।

অপু জানান, ফারজানা মুন্নী ভাবি নিজে আমাকে কল করেছেন। হোয়াটসঅ্যাপে কথা হয়েছে। তিনি আমাকে বলেছেন, তাপসের সংসারে তিনি আর থাকতে চান না। আমি বলেছি ভাবি আপনি এটা করবেন না। ওই মহিলা (বুবলী) চায় সবার সংসার ভেঙে যাক। শাকিবকে যাতা ভাবে ব্যবহার করেছে ওই মহিলা। এর পর শাকিবের সঙ্গেও মুন্নীর বিষয়টি নিয়ে কথা হয় বলে জানান অপু বিশ্বাস।

এ নায়িকা আরও বলেন, মুন্নী ভাবির মতো অনেক সংসারকে এই মহিলা টার্গেট করেছে। আমি বগুড়ার মেয়ে। সেখানকার পরিবারকেও ধ্বংসের চেষ্টা করা হয়েছে।
অপু বিশ্বাস বলেন, সর্বোপরি বলতে চাই ঘটনার সত্যতার জন্যই স্ট্যাটাসটা এসেছিল।

উনি স্ট্যাটাস দিলেন, হয়ে গেলাম আমি হ্যাকার। উনি ফোন করে আমাকে নিজের সমস্যা নিয়ে নানা কথা বলতে লাগলেন। পরে আমাকেই দোষী বানানো হলো।

অপু বুবলীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, নোংরা তো নোংরাই। এর তো জায়গা অবস্থান নেই। পচা আলু ভালো রুমে থাকলেও গন্ধ বের হবে। গন্ধটা আমার পরিবারকে উইপোকার মতো খেয়ে খেয়ে আরেকটা পরিবারে ঢুকেছে। পচা আলু যেহেতু ধরেছেন, গন্ধ তো ছড়াবে।

 

আরও পড়ুন