শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

সর্বশেষ

অবশেষে মুখ খুললেন জি এম কাদের

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচন নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলতে দেখা যায়নি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদেরকে। অবশেষে এ নিয়ে মুখ খুলেছেন সংসদের বিরোধী দলীয় এই উপনেতা।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকালে রংপুর নগরীর পার্টি অফিসে সাংবাদিক ও কর্মীদের সঙ্গে নির্বাচনী মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, রাজনৈতিক পট পরিবর্তন হওয়ার কারণে আমি এতদিন ঢাকায় কথা বলিনি। আজ মায়ের কোলে বসে কথা বলছি।

নির্বাচনে আসার বিষয়ে জি এম কাদের বলেন, তফসিল ঘোষণার পর বিরোধীদের আন্দোলন যখন ধীরে ধীরে স্থিমিত হয়ে যাচ্ছিল এবং জনগণ নির্বাচনমুখী হচ্ছিল তখন জাতীয় পার্টি নির্বাচনে এসেছে। এ ছাড়া এই নির্বাচন কমিশনের কাছে আস্থা আছে বলে আমার নির্বাচনে যাচ্ছি।

জি এম কাদের আরও বলেন, নির্বাচনে না আসলে জাতীয় পার্টি বিভক্ত হয়ে যেতে পারে। আর যখন দেখছি, সরকার যেকোনো মূল্যে নির্বাচন করবে সেই অবস্থা বিবেচনা করেই নির্বাচনে অংশ নেওয়া।

তিনি বলেন, সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেই নির্বাচনে এসেছি। তারা সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস দিয়েছে। যেহেতু এ নির্বাচনে তাদের ক্ষমতা হারানোর ঝুঁকি নেই তাই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে আশা করি। তবে, কোনো ব্যত্যয় হলে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, আওয়ামী লীগ নিজ থেকে প্রার্থী প্রত্যাহার করেছে। আমরা কিন্তু কোনো প্রার্থী প্রত্যাহার করিনি। এটা কোনো সমঝোতা নয়।

উল্লেখ্য, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল গত ১৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন।

তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ছিল ৩০ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ছিল ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত, মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল ও নিষ্পত্তির সময় ছিল ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৭ ডিসেম্বর এবং প্রতীক বরাদ্দের সময় ছিল ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

ইতোমধ্যে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়েছে। চলবে ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ ২০২৪ সালের সাত জানুয়ারি।

আরও পড়ুন