শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

৭ জানুয়ারি নির্বাচনের ফল জনগণ ও গণতন্ত্রের বিজয়: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে সরকার গঠন করেছে। এ বিজয় জনগণের বিজয়। এ বিজয় গণতন্ত্রের বিজয়।

শুক্রবার বেলা ১১টায় সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে রক্ষিত স্বাক্ষর বইয়ে প্রধানমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

এর আগে নবগঠিত মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়ে স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়ে উঠবে ইনশাআল্লাহ। লাখো শহিদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করছি।’

এর আগে শুক্রবার সকালে নবগঠিত মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তার নেতৃত্বে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নতুন মন্ত্রীরা।

পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথগ্রহণ শেষে শনিবার টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাবেন। মন্ত্রিসভার সদস্যসহ তিনি টুঙ্গিপাড়ায় শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার পর বঙ্গভবনের দরবার হলে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথবাক্য পাঠ করান রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। টানা চতুর্থ মেয়াদে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার পরিচালনায় এবার মন্ত্রিসভার ২৫ মন্ত্রী ও ১১ প্রতিমন্ত্রী নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণের পর মন্ত্রিসভার ২৫ মন্ত্রী প্রথমে মন্ত্রী হিসাবে এবং পরে গোপনীয়তার শপথগ্রহণ করেন।

আরও পড়ুন