সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

সর্বশেষ

আমি এখনো হারিয়ে যাইনি

অভিনয়ে যেমন পটু, তেমনি নাচেও বেশ পারদর্শী। এর পাশাপাশি উপস্থাপনায়ও সাবলীল মিষ্টি হাসির মেয়ে মুমতাহিনা চৌধুরী টয়া। প্রায় ১৩ বছরের ক্যারিয়ার তার। এর মধ্যে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় নাটক কিংবা টেলিছবি। এর বাইরে ওয়েব কিংবা সিনেমায়ও দেখা গেছে এই লাক্স সুন্দরীকে। বিয়ের পর বিরতি নিয়েছিলেন। এরপর আবার কাজেও ফেরেন; তবে নিয়মিত হননি। নতুন বছরে নতুন প্রত্যয়ে কাজ শুরু করবেন বলে জানান এই তারকা।

ক্যারিয়ারের তুঙ্গে থাকা অবস্থায় হুট করে বিরতি নেন, তবে হারিয়ে যাননি অন্য অনেকের মতো। প্রতিবারই জানান দিয়েছেন তিনি আছেন। মুমতাহিনা টয়ার ভাষ্যে, ‘আমি কিন্তু হারিয়ে যাইনি। ব্যক্তিগতভাবে মনে হয়েছিল যে আমার একটু বিরতি দরকার, সেটা নিয়েছি। অভিনয় একটু কমিয়েছিলাম। এ ছাড়া যেকোনো অনুষ্ঠান কিংবা প্রয়োজনে আমাকে কিন্তু পাওয়া যায়। যেহেতু স্বামী, সংসার আছে সবকিছু সামলে নিজেকেও কিছুটা সময় দিতে হয়।’

এই লাক্স সুন্দরী বলেন, ‘আমার পুরো ক্যারিয়ারে এ রকম অনেক কাজই আছে যেগুলো দর্শক প্রশংসিত। এখনো অনেকের কাছ থেকে মন্তব্য কিংবা মেসেজ পাই সেই কাজগুলো নিয়ে। পাশাপাশি তারা এ-ও জানতে চান, কেন এখন নিয়মিত অভিনয় করছি না। আমি যে সময়টাতে বিরতি নিয়েছি। কারণ, ওই সময় প্রায় একই ধরনের গল্প কিংবা চরিত্রের প্রস্তাব আসছিল, কিন্তু ভিন্নতা পাচ্ছিলাম না। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে হলে সেটা ঠিক আছে, কিন্তু একটা সময় পর গিয়ে নিজের মধ্যেও কিছুটা পরিবর্তন আনতে হয়, কাজেও। একটু ভ্যারিয়েশন তো দরকার। নিজেকে নতুনভাবে নতুনরূপে উপস্থাপন কিংবা ভেঙে গড়ার মতো কোনো স্ক্রিপ্ট পাচ্ছিলাম না। তাই ভাবলাম যে একটু বিরতি নিই।’

বিরতি নিয়ে একদমই বাসায় বসে ছিলেন না অভিনেত্রী। তার মতে, ‘আমি বিভিন্ন এন্ডোরসমেন্ট করেছি, বিজ্ঞাপন করেছি, ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যুক্ত আছি। যে অভিনয় দিয়ে দর্শকের ভালোবাসা পেয়েছি, গড়পড়তা কাজ দিয়ে তাদের সঙ্গে প্রতারণাা করতে পারি না। প্রতি মুহূর্তেই ভালো গল্পের অপেক্ষায় ছিলাম।’

তার মানে কি বলতে চাচ্ছেন ভালো গল্পের স্ক্রিপ্ট আপনার কাছে আসে না? এমন প্রশ্নে টয়ার উত্তর, ‘এখন কম্পিটিশনের যুগ। প্রতিনিয়তই কম্পিটিশন। নিশ্চয় এখন অনেক ভালো ভালো গল্পের কাজ হচ্ছে। অনেক নতুন নতুন মেয়ে এসেছে ইন্ডাস্ট্রিতে। এটাকে আমি সাধুবাদ জানাই এবং তাদের কাজও আমি দেখি। একটা গল্প লেখার পর পরিচালক হয়তো সেই গল্প কিংবা চরিত্র অনুযায়ী সে রকমই কাউকে নিয়ে কাজটা করতে চান বা চাইবেন। এটা খুব স্বাভাবিক। আমি যেগুলো পেয়েছি, সেগুলোতে আমার মন খুব একটা সায় দেয়নি। নিজেকে ভেঙে নতুন করে তৈরি করার মতো গল্প কিংবা চরিত্রের জন্য আমি মুখিয়ে আছি। কাজ তো অবশ্যই করতে চাই। পরিচালকরা যদি আমাকে এখন নিয়ে নতুন কিছু ভাবতে চান, আমি অবশ্যই সেটাকে সম্মান জানাব এবং নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘অনেককেই বলতে শুনেছি, টয়া নাকি অনেক দেমাগি, তাকে পাওয়া যাওয়া না ব্লা ব্লা..। কিন্তু আমার মনে হয় তাদের ধারণাটা ভুল। অন্যের কাছ থেকে শুনে কিছু বলাটা উচিত নয়। আমার সঙ্গে যারা কাজ করেছেন, তারা জানেন আমি কেমন! আমি ভীষণ কাজপ্রিয় মানুষ কিন্তু বলতে পারি না “আমাকে কাজে নেন।” পুরো ক্যারিয়ারে কাউকেই আমি এই কথা বলিনি।’

‘আমার কিন্তু কারও প্রতি কোনো ক্ষোভ বা কোনো আক্ষেপ নেই। অনেকেই হয়তো বিষয়গুলোকে ভুলভাবে নিতে পারেন, কিন্তু আমার কাজ না করার পেছনে একান্তই আমার ইচ্ছে ছিল এবং সেটা অনেক আগে। এখন তো একটু একটু কাজ করছি। তবে অভিনয়ে নিয়মিত হতে চাই। এ বছর নিয়ে কিছু পরিকল্পনা করেছি। আমার দর্শকরা এ বছর আমাকে নিয়মিতই পাবেন। কিছু কাজ নিয়ে কথা হয়েছে, হচ্ছে। শিগগিরই হয়তো তাদের ভালো কোনো খবর দিতে পারব।’ যোগ করেন লাক্সতারকা।

নাটকের পাশাপাশি ওটিটিতেও সরব হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন টয়া। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন সুযোগ পেলে বড় পর্দায়ও হাজির হতে চান। ভালো গল্প এবং পরিচালক হলে ‘হ্যাঁ’ বলতে দ্বিতীয়বার ভাববেন না তিনি।

আরও পড়ুন