রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪

সর্বশেষ

সন্তানের বাবা কে, বিতর্কের মাঝে এবার মুখ খুললেন ইলিয়ানা

মা হতে যাওয়ার খবর প্রকাশের পর থেকে জনপ্রিয় দক্ষিণী অভিনেত্রী ইলিয়ানা ডি’ক্রুজকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষ শুরু হয়েছে। বিয়ে না করেই কীভাবে সন্তান হচ্ছে, তা নিয়ে নানান প্রশ্ন অভিনেত্রীকে। হবু বাচ্চার বাবা কে, তা জানতে চেয়েও নানারকম কটূক্তি ইলিয়ানাকে। তবে এসবে পাত্তা দেননি তিনি।

বরং মাতৃত্বকালীন সময়কেই উপভোগ করছেন তিনি। 

এবার সব বিতর্ককে এক পাশে রেখে সন্তানের বাবার ছবি প্রকাশ্যে আনলেন ইলিয়ানা। আর সঙ্গে ভালবাসা উজাড় করে দিলেন মনের মানুষকে। ইলিয়ানা তার ইনস্টাগ্রামে যে ছবিটি পোস্ট করেছেন সেটি একটি সাদাকালো ছবি।

যেখানে দেখা যাচ্ছে একটি পুরুষ মানুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। ছবি আবছা হলেও, এই পোস্টে ইলিয়ানার ভালবাসা একেবারে স্পষ্ট। 

ইলিয়ানা লিখলেন, অন্তঃসত্ত্বা হওয়াটা খুবই সুন্দর একটা অভিজ্ঞতা। আমি খুবই ভাগ্যবতী যে এই অপূর্ব অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি।

আমার ভিতরে যে প্রাণ বড় হচ্ছে সেই অনুভূতিটা অসাধারণ…। 

এই পোস্টে ইলিয়ানা আরও লিখলেন, আমার পাশে যে পুরুষ মানুষটিকে পেয়েছি, সে শক্ত করেছে আমার মনকে। পাশে ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। যখন আমি কেঁদেছি তখন চোখ মুছিয়েছে, হাসিয়েছে আমায়। তাই সব কঠিন সময়ই আমার কাছে সহজ লাগতে শুরু করেছে।

 

কয়েকদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন আংটি বদলের ছবি যেখানে দেখা গেল এক পুরুষের হাতে হাত দিয়ে রয়েছেন ইলিয়ানা। ইনিই কী তাহলে ইলিয়ানার হবু সন্তানের বাবা? অন্তঃসত্ত্বা অবস্থাতেই কী তাহলে বাগদান সারলেন তিনি? কে এই ইলিয়ানার সঙ্গী?

এক ছবিতেই এতগুলো প্রশ্ন ছুঁড়ে দিলেন ইলিয়ানা। ইনস্টাগ্রামে স্টোরি পোস্ট করে ইলিয়ানা লিখলেন, ‘আমার মতে এটাই রোম্যান্স। ’ উল্লেখ্য,  অস্ট্রেলিয়ার ফটোগ্রাফার অ্যান্ড্রিউ নিবোনের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন ইলিয়ানা। একাধিকবার তাঁর সঙ্গে ক্যামেরার সামনে পোজ দিয়েছেন। ২০১৯ সালে দু’জনের বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ্যে আসে।

অ্যান্ড্রিউ এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য না করতে চাইলেও ইলিয়ানা বিচ্ছেদের খবর স্বীকার করে নেন। তারপর খবরে এসেছিল ক্যাটরিনা কাইফের ভাই সেবাস্টিয়ান লরেন্ট মিশেলের সঙ্গে প্রেম করছিলেন ইলিয়ানা। সেই প্রেম নিয়ে অবশ্য মুখ খুলতে দেখা যায়নি তাকে। প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি এই সন্তান ক্যাটরিনার ভাই সেবাস্টিয়ানের? তবে এসব নিয়ে এখনই কিছু জানাতে চাননি ইলিয়ানা।

 

আরও পড়ুন