শুক্রবার, ১২ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

অভিমান ভুলে আবারও কি মাঠে ফিরবেন চিটাগাংয়ের অহংকার  তামিম?

প্রথমে কঠিন গলা কিছুক্ষণ পর কান্নায় ধরে এল। চোখ ভিজল। নোনা জল তার বুকে জমানো অভিমানের কথা অনুচ্চারে বলে গেল। আর তামিম ইকবালের কণ্ঠে উচ্চারিত শব্দগুলো জানিয়ে দিল বাংলাদেশের ক্রিকেটের সুন্দর এক অধ্যায়ের সমাপ্তির কথা। বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রামের একটি হোটেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তামিম।

তবে হঠাৎ তামিমের এমন সিদ্ধান্ত ভক্ত-সমর্থকদের পাশাপাশি মানতে পারছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস তামিমের এমন সিদ্ধান্তে অবাক হয়েছেন।

বোর্ড পরিচালক বলেন, তামিমের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা একদমই অপ্রত্যাশিত, যেটা অনাকাঙ্খিত। খুবই দুঃখজনক। আমরা এর জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না।

জালালের মতে, তামিম ইচ্ছে করলে আরও ২ বছর অনায়াসে জাতীয় দলে খেলতে পারতেন। বোর্ড থেকে তামিমকে সিদ্ধান্ত বদলের জন্য কোনো অনুরোধ জানানো হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে জালাল বলেন, আমরা বোর্ড থেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানাব।

এদিকে তামিম ইকবালের অবসর ইস্যু নিয়ে এখনও আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে মন্তব্য জানানোর আগে আজ রাত ১০টায় বিসিবি রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে সভা ডেকেছে।

অন্যদিকে, তিন মাস বাদে ভারতে পর্দা উঠবে ওয়ানডে বিশ্বকাপের। এই আসরকে ঘিরে বড় স্বপ্ন দেখছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। এমন সময়ই অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। বিষয়টিকে বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা হিসেবে দেখছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি।

এমন অবস্থায় তামিম যদি অবসর ভেঙে ফিরেন, তবে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। যেহেতু ওপেনিং পজিশনে বাংলাদেশ এখনও কোনো সমাধান খুঁজে পায়নি। সৌম্য সরকার, নাঈম শেখদের কেউই নিজেদের আস্থার প্রমাণ দিতে পারেননি। ফর্মে নেই লিটন কুমার দাসও।

তামিমের অবসরের পর নিজেদের সাইটে তামিমকে নিয়ে একটি ফিচার প্রকাশ করেছে আইসিসি। সেই ফিচারে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা জানিয়েছে, তামিমের অবসরের বিষয়টি বাংলাদেশের জন্য ভালো খবর নয়।

আইসিসির মতে, ভারত বিশ্বকাপের আগে তামিমের অবসর বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা। টুর্নামেন্টের তিন মাস আগে ১৬ বছরের ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন তামিম।

আরও পড়ুন