শুক্রবার, ১২ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে চট্টগ্রামে শ্রমিক জনতার সমাবেশ সফল করুন-শামীম

বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম বলেছেন, চট্টগ্রামের পলোগ্রাউন্ডে বিএনপির সমাবেশ শত বাধা বিপত্তির পরও জনসমুদ্রে পরিনত হয়েছিল। পলোগ্রাউন্ডের জনসভা সারা বাংলাদেশের জনসভাকে উজ্জীবিত করেছিল। আগামী ১৬ জুলাই চট্টগ্রামের শ্রমিক জনতার মহাসমাবেশও জনসমুদ্রে রুপ নেবে। এই সমাবেশ থেকেই ফ্যাসিস্টদের পতনের বার্তা যাবে। তাই সরকার আজকে ক্ষমতা হারানোর ভয়ে ভীত হয়ে গিয়েছে। কিন্তু বিএনপি নেতাকর্মীরা ভয়কে জয় করে ফেলেছে। নেতাকর্মীরা প্রমান করেছে মিছিল সমাবেশে যত বাধায় আসুক কেউ পিছপা হয়না। জীবন দিয়েছে, পিছপা হয়নি। অনেক নেতৃবৃন্দকে জেলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আন্দোলন দমাতে পারেনি। সরকারের পতন ছাড়া আমরা ঘরে ফিরে যাচ্ছিনা। আগামীদিনের আন্দোলনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এগিয়ে যেতে হবে। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে চট্টগ্রামের মহাসমাবেশ সফল করতে হবে।

তিনি শুক্রবার (৭ জুলাই) বিকালে শহীদ সরণিস্থ কক্সবাজার জেলা বিএনপির কার্যালয়ে আগামী ১৬ জুলাই চট্টগ্রাম বিভাগীয় মেহনতি শ্রমিক জনতার মহাসমাবেশ সফল করার লক্ষে কক্সবাজার জেলা বিএনপির প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি মো. শাহজাহান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এড. শামীম আরা স্বপ্নার পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির মৎস্যজীবী বিষয়ক সম্পাদক সাবেক এমপি লুৎফুর রহমান কাজল। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রম সম্পাদক এ এম নাজিম উদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য আলমগীর মাহফুজ উল্লাহ ফরিদ, চট্টগ্রাম বিভাগীয় শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক শেখ নুরুল্লাহ বাহার।

এসময় মাহবুবের রহমান শামীম বলেন, আন্দোলনের মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে বিদায় হতে হবে। সেই আন্দোলনে বাংলাদেশের জনগণ জয়ী হবে। জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে সরকার টিকতে পারবে না। জনতার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে যদি আবারো আরেকটি অবৈধ ভোট চুরির আয়োজন করেন দেশের মানুষ সেটা করতে দেবেনা। ভোট চোরদের এরমধ্যেই চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশের মানুষ। আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে পরাজিত হয়ে গেছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে লুৎফুর রহমান কাজল বলেন, আগামী ১৬ জুলাই চট্টগ্রাম বিভাগীয় মেহনতি শ্রমিক জনতার যে মহাসমাবেশে শুধু চট্টগ্রাম নয়, সারাদেশের মানুষের চোখ থাকবে। তাই হারানো গণতন্ত্র ফিরে পেতে যেকোনো মূল্যে এই সমাবেশ সফল করতে হবে। সমস্ত বাধা বিপত্তিকে উপেক্ষা করে আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। নেতাকর্মীদের সবার অংশগ্রহণের মাধ্যমে আমাদের আন্দোলন বেগবান করতে হবে।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে এ এম নাজিম উদ্দীন বলেন, ক্ষমতায় এলেই আওয়ামী লীগ লুটপাট করে। তারা জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করে ভয় দেখিয়ে শাসন করে। এখন সাধারণ মানুষের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। আওয়ামী লীগ দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কাঠামো ধ্বংস করে দেশে লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করেছে।

প্রস্তুতি সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সি. সহ সভাপতি এ টি এম নুরুল বশর চৌধুরী, সহ সভাপতি রফিকুল হুদা চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক আক্তার চৌধুরী, বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম, সারোয়ার জাহান চৌধুরী, আব্দুল মাবুদ, এড. হাসান সিদ্দিকী, জালাল আহমেদ, মোক্তার আহমেদ, সৈয়দ আহমেদ উজ্জ্বল, এড. মো. ইউনুস, শাহদাত হোসেন রিপন, মোস্তফা কামাল প্রমুখ

আরও পড়ুন