রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ

আওয়ামী লীগ কখনো কোন আন্দোলনে ক্ষমতাচ্যুত হয়নি- আ.জ.ম. নাছির

 

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন বলেছেন, যেকোন গণতান্ত্রিক বিশ্বে নির্বাচন হচ্ছে একটি সাংবিধানিক সংস্কৃতি। এই নির্বাচন কিভাবে হবে বা না হবে তার সিদ্ধান্ত নেবে দেশের সরকার, নির্বাচন কমিশন ও জনগণ। আজকে যেসকল ক্ষমতাধর দেশ বাংলাদেশের নির্বাচন ও অভ্যন্তরীন বিষয় নিয়ে নাক গলাচ্ছে সেসকল দেশে নির্বাচন কিভাবে হয় এবং নির্বাচনী সংস্কৃতি কেমন তা অবশ্যই তারা জানেন। কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে তাদের এই নাকগলানোর বিষয়টি আগ্রাসন ও সম্প্রসারণবাদী নীল নকশার প্রতিফলন।

তিনি গতকাল রোববার রাতে লালখান বাজারে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন ও ভ্রাত্রিপ্রতিম অঙ্গ সংগঠনের সাথে মতবিনিময় সভায় একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, বিএনপি বার বার আন্দোলনের ডাক দিয়ে কোথায় যেন হারিয়ে যায়। তারা সরকার পতনের তারিখও নির্ধারণ করে দিয়েছিল একাধিকবার। কিন্তু কখনো তাদের দুরবিসন্ধি সফল হয়নি এবং হবেও না। সুতরাং আওয়ামী লীগকে আন্দোলনের ভয় দেখিয়ে কোন লাভ নেই। কেননা আন্দোলনের মধ্য দিয়েই আওয়ামী লীগের জন্ম ও উত্থান হয়েছে। কোন অতীতে আন্দোলনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাচ্যুত হয়নি।

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রত্যেকটি ইউনিট, ওয়ার্ড ও থানা পর্যায়ে পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের নিয়ে দলকে সংগঠিত করে জনগণের ঘরে ঘরে গিয়ে বর্তমান সরকারের সাফল্য ও সফলতার বার্তাগুলো পৌঁছে দিতে পারলে কোন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নিশ্চিত বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও চট্টগ্রাম-১০ আসনের উপ নির্বাচনের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চুর সভাপতিতে ও প্রচার দপ্তর উপ কমিটির সমন্বয়ক আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় চট্টগ্রাম-১০ আসনের উপ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মহিউদ্দিন বাচ্চু বলেন, নির্বাচন আচরণবিধি অনুযায়ী এখনো প্রকাশ্যে ভোট চাওয়া ও নির্বাচনী প্রচারণার সুযোগ নেই। তবে ব্যক্তিগত পর্যায়ে ও ঘরে ঘরে গিয়ে আমরা ভোটারদের সাথে কথা বলে তাদের মন জয় করতে পারি। এক্ষেত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেরও একটি বড় ভূমিকা থাকতে পারে। যখন পর্যন্ত প্রকাশ্যে নির্বাচনী প্রচারণা চালনার সুযোগ না ঘটবে ততক্ষণ পর্যন্ত এভাবেই আমাদেরকে জনসম্পৃক্ততা মাধ্যমে ভোটারদের মন জয় করে যেতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, আইন বিষয় সম্পাদক এড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবু তাহের, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের সভাপতি মাহবুবুল হক সুমন, সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম দিদার, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি দেবাশীষ নাথ দেবু, সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান আজিজ, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের তারেক মাহমুদ পাপ্পু, শ্রমিক লীগের সভাপতি বখতেয়ার উদ্দীন খান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আক্তার উদ্দীন আহমেদ, রেল শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. এ.এস.এম বজলুর রশিদ মিন্টু, আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের মেজবাহ উদ্দীন চৌধুরী, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু, সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, যুব ও মহিলা লীগের আহ্বায়িকা অধ্যাপিকা সায়েরা বানু রুশ্মি, যুগ্ম আহ্বায়িকা জাহানারা সাবের, নাজমা আক্তার মিতা, মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি আমিনুল হক বাবুল সরকার, সাধারণ সম্পাদক এম.এ মোতালেব তালুকদার, মহানগর তাঁতী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন মানিক, কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাসনাত চৌধুরী, মহানগর শ্রমিক লীগ সিবিএ নন সিবিএর সদস্য সচিব আবুল হোসেন আবু, জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগের সভাপতি নাসরিন আক্তার নাহিদা, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারা বেগম। একই সময়ে চট্টগ্রাম-১০ আসনের অন্তর্ভূক্ত আওয়ামী লীগ সমর্থিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরদের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন বলেন, আপনারা যেহেতু জনপ্রতিনিধি সেহেতু জনগণের সমস্যার কথা ভালোভাবে জানেন। আপনারা যেহেতু নির্বাচন করে বিজয়ী হয়েছেন সেহেতু ভোটারদের সাথে আপনাদের সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে। তাই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত করার জন্য বর্তমান সরকারের সাফল্য ও অর্জন ও লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের কথা আপনারাই সরাসরি ভোটারদের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন এই দায়িত্ব অবশ্যই আপনাদেরকে পালন করতে হবে। এছাড়াও ভোটারদেরকে ভোট কেন্দ্রে উপস্থিতির বিষয়টিও আপনাদেরকে অধিকতরভাবে গুরুত্ব দিতে হবে। এসময় কাউন্সিলরদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মোঃ মোর্শেদ আলম, অধ্যাপক মোঃ ইসমাইল, হাজী নুরুল আমিন, মোঃ ওয়াসিম উদ্দীন চৌধুরী, আবুল হাসনাত বেলাল, নামজুল হক ডিউক, আব্দুর সবুর লিটন, হাজী মোঃ ইলিয়াছ, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর, জেসমিন পারভিন জেসি, তসলিমা নূর জাহান রুবি, আঞ্জুমান আরা, জাহেদা বেগম পপি, হুরে আরা বিউটি প্রমুখ।

আরও পড়ুন